Home টেক ডিজিটাল মার্কেটিং কী? ডিজিটাল মার্কেটিং করে আয় করুন ঘরে বসে

ডিজিটাল মার্কেটিং কী? ডিজিটাল মার্কেটিং করে আয় করুন ঘরে বসে

0

ডিজিটাল মার্কেটিং করে আয় করুন ঘরে বসে। ডিজিটাল মার্কেটিং হল সার্চ ইঞ্জিন, সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম এবং পিপিসি বিজ্ঞাপনের মতো এক বা একাধিক বিপণন চ্যানেল (মাধ্যম) ব্যবহার করে ইন্টারনেটে পণ্য বা পরিষেবার প্রচার ও বিক্রয় করার প্রক্রিয়া। ডিজিটাল বিপণন আপনাকে আপনার ব্র্যান্ডে আগ্রহী সম্ভাব্য ক্রেতাদের খুঁজে পেতে, তাদের সাথে যুক্ত হতে এবং তারা গ্রাহক না হওয়া পর্যন্ত তাদের সাথে জড়িত হতে দেয়।

সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ এবং জনপ্রিয় ডিজিটাল মার্কেটিং উদাহরণ হল সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং, কন্টেন্ট মার্কেটিং, পিপিসি মার্কেটিং, সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং এবং ইমেইল মার্কেটিং। বর্তমানে, বিশ্বের সমস্ত নামী কোম্পানি তাদের অনলাইন পোর্টালের মাধ্যমে তাদের পণ্যের ডিজিটাল বিপণনের উপর নির্ভরশীল। কারণ একমুখী বিজ্ঞাপনের পুরনো পদ্ধতিগুলো আর কাজ করে না। ফলে ডিজিটাল মার্কেটিং কৌশল অবলম্বন করে অনলাইন গ্রাহকদের সাথে দ্বিমুখী যোগাযোগ স্থাপন করতে হবে। কারণ আজকাল বেশিরভাগ গ্রাহকই অনলাইন বা ইন্টারনেট থেকে আসে।

আপনি যদি মনে করেন যে ডিজিটাল বিপণন আপনার দৈনন্দিন কার্যকলাপের একটি অপরিহার্য অংশ নয়, তাহলে এটি অবশ্যই আপনার ব্যবসার জন্য ক্ষতিকর হবে। আপনি যখনই সোশ্যাল মিডিয়ায় টুইট, পোস্ট, শেয়ার বা মন্তব্য করেন, আপনি নিজেকে মার্কেটিং করছেন এবং অনলাইনে আপনার নিজস্ব ব্র্যান্ড তৈরি করছেন।

ডিজিটাল মার্কেটিং কী?

আপনি একজন ব্যবসায়ী হলে অবশ্যই ডিজিটাল মার্কেটিং করবেন। কারণ যে হারে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা বাড়ছে তাতে পণ্য সম্পর্কে মানুষকে সহজে জানানোর জন্য ডিজিটাল মার্কেটিং-এর চেয়ে সহজ কোনো বিপণন ব্যবস্থা নেই। ডিজিটাল মার্কেটিং সঠিকভাবে করা গেলে খুব অল্প সময়ে ঘরে বসেই যেকোনো কোম্পানির পণ্য মানুষের কাছে পৌঁছানো সম্ভব হবে। অনলাইন শপিং গেটওয়ের অভাবে ডিজিটাল মার্কেটিং আমাদের দেশে খুব একটা জনপ্রিয় হয়ে ওঠেনি। তবে যে হারে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা বাড়ছে তাতে স্পষ্টতই বোঝা যাচ্ছে যে ডিজিটাল মার্কেটিং সিস্টেম খুব শীঘ্রই আমাদের দেশে মার্কেটিং এর একটা বড় জায়গা দখল করবে।

ডিজিটাল মার্কেটিংয়ের ফলে একদিকে যেমন মানুষ ইন্টারনেটের মাধ্যমে ঘরে বসে পণ্য কিনতে পারছে, অন্যদিকে ব্যবসায়ীরা তাদের পণ্য কম দামে মানুষের কাছে বিক্রি করে ব্যবসায় সফল হচ্ছেন। সেই সাথে ডিজিটাল মার্কেটাররা তাদের মেধাকে কাজে লাগিয়ে বিভিন্ন ধরনের ডিজিটাল মার্কেটিং করে এবং ডিজিটাল মার্কেটিং ক্যারিয়ারের মাধ্যমে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে লাখ লাখ টাকা আয় করে।

ডিজিটাল মার্কেটিং কেন শিখবেন ?

আমরা যদি একটি বিষয়ে মনোযোগ দেই তাহলে দেখব যে আজকাল সবকিছুই ডিজিটাল মিডিয়া ভিত্তিক বা ইন্টারনেট ভিত্তিক হয়ে গেছে। এবং আমরা এটাও জানি যে প্রতিটি কোম্পানির জন্য মার্কেটিং কতটা গুরুত্বপূর্ণ। আজকাল যেহেতু সবকিছুই ডিজিটাল মিডিয়া ভিত্তিক হয়ে গেছে, তাই মার্কেটিং বাদ পড়েনি। দেখুন: ডিজিটাল মার্কেটিং সারা বিশ্বে ব্যাপকভাবে ব্যবহৃত হলেও আমাদের দেশে এর ব্যবহার তুলনামূলকভাবে কম।

অনেক ব্যবসায়ী তাদের ব্যবসার জন্য ডিজিটাল মার্কেটিংকে প্রয়োজনীয় বলে মনে করেন না। কিন্তু তিনি যদি ডিজিটাল মার্কেটিং প্রয়োগ করেন তবে তিনি অনেক নতুন গ্রাহক তৈরি করতে পারেন এবং প্রতিযোগীদের সাথে সহজেই প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারেন। অনেকে ডিজিটাল মার্কেটিংকে ফেসবুকে মার্কেটিং, ফেসবুক মার্কেটিংকে ফেসবুকে বিজ্ঞাপন, ফেসবুকে বিজ্ঞাপনকে আরও মানুষের কাছে পৌঁছানোর উপায় হিসেবে বোঝেন! প্রথমত আমরা পুরো বিষয়টির দিকে তাকাচ্ছি না এবং অন্যদিকে আমি আমার বক্তব্যটিকে অন্য দিকে নিয়ে যেতে চাই।

ডিজিটাল মার্কেটিং এর সুবিধা

ডিজিটাল মার্কেটিং এর অনেক সুবিধা আছে। ধরুন আপনার একটি পণ্যের ব্যবসা আছে। এখন আপনার পণ্য বিক্রি হচ্ছে না বা আপনি চান আপনার পণ্য অন্যদের থেকে বেশি বিক্রি হোক। এক্ষেত্রে ডিজিটাল মার্কেটিং অবলম্বন করে আপনি সহজেই ঘরে বসে আপনার পণ্য বিক্রি করতে পারেন এবং সাফল্য অর্জন করতে পারেন। ডিজিটাল মার্কেটিং এর মাধ্যমে আপনি সহজেই আপনার নিজের ব্যবসা সহ যে কারো ব্যবসাকে এগিয়ে নিতে পারেন। এক্ষেত্রে সঠিকভাবে মার্কেটিং করলে খুব অল্প পরিশ্রমেই ভালো সাফল্য পাওয়ার আশা করা যায়। এসব কারণে ডিজিটাল মার্কেটিংয়ের চাহিদা দিন দিন বাড়ছে।

ঘরে বসেই কীভাবে ডিজিটাল মার্কেটিং শিখবেন?

একজন সফল ডিজিটাল মার্কেটার হতে হলে আপনাকে সমস্ত অনলাইন প্রযুক্তির সাথে কাজ করার জন্য প্রয়োজনীয় দক্ষতা অর্জন করতে হবে। এবং তারা মোটেও কঠিন নয়। আপনি যদি বিভিন্ন ধরণের সোশ্যাল মিডিয়ার সাথে পরিচিত হন এবং সেগুলি কীভাবে ব্যবহার করতে হয় তা জানেন তবে আপনি নিজেরাই অনেক ডিজিটাল মার্কেটিং কৌশল আয়ত্ত করতে পারেন। কঠোর পরিশ্রম এবং ধৈর্যের সাথে আপনি ডিজিটাল মার্কেটিং আয়ত্ত করতে পারেন। কিন্তু সুসংবাদ হল যে ডিজিটাল মার্কেটিংয়ে দক্ষ হওয়ার জন্য আপনাকে কোনো ইনস্টিটিউটে যোগ দিতে হবে না বা কোনো কোর্স করতে হবে না। এই কোর্সে আমরা ডিজিটাল মার্কেটিং শেখার কিছু প্রাথমিক পদ্ধতির রূপরেখা দেব, যেগুলো অনুসরণ করে আপনি নিজের ঘরে বসেই আপনার দক্ষতা অর্জন করতে এবং গড়ে তুলতে পারেন।

ওয়েবসাইট এর জন্য ডিজিটাল মার্কেটিং এর  গুরুত্ব

সার্চ ইঞ্জিনে ওয়েবসাইট র‌্যাঙ্ক করার জন্য ডিজিটাল মার্কেটিং কাজ খুবই প্রয়োজন। আপনার ওয়েবসাইট Google-এ ইন্ডেক্স করা উচিত এবং Google-এ রিপোর্ট করা উচিত। সার্চ ইঞ্জিনে ওয়েবসাইটকে র‌্যাঙ্ক করতে হলে বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়ায় লিঙ্ক শেয়ার করতে হবে। বিশ্বজুড়ে প্রচুর মানুষ সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করে।

এটি আপনার ওয়েবসাইটের ট্রাফিক বাড়াবে। বিভিন্ন ফ্রুম পোস্ট, গেস্ট পোস্ট বা আরও অনেক উপায়ে ওয়েব সাইট প্রচার করা যায়। এই সব কাজ করলে আপনার ওয়েব সাইটটি সার্চ ইঞ্জিনের প্রথম পাতায় চলে আসবে। দর্শকরা অনুসন্ধান করার সাথে সাথে আপনার ওয়েবসাইটটি খুঁজে পাবে। আপনার ওয়েবসাইট জনপ্রিয় হয়ে উঠবে। আজকাল অনলাইনে ডিজিটাল মার্কেটিং এর ব্যাপক চাহিদা রয়েছে।

ডিজিটাল মার্কেটিং কিভাবে করবেন ?

ডিজিটাল মার্কেটিং এর 20 টিরও বেশি বিভাগ রয়েছে। আপনাকে এই সমস্ত বিভাগে দক্ষ হতে হবে। তারপর ডিজিটাল মার্কেটিং করতে হলে আপনাকে অনলাইন মার্কেটপ্লেসে কাজ করতে হবে অথবা আপনার নিজের ব্যবসা থাকতে হবে যার জন্য আপনি ইন্টারনেট মার্কেটিং করতে পারবেন। আপনি অনলাইন প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করে সহজেই আপনার কোম্পানির পণ্য বাজারজাত করতে পারেন। আপনি চাইলে অনেক প্ল্যাটফর্মে একসাথে মার্কেটিং এর কাজ করতে পারেন এবং আপনি চাইলে একটি মাত্র প্লাটফর্ম নিয়ে কাজ করতে পারেন।

তবে আপনাকে অবশ্যই আপনার বেপসার গ্রথ বিধির জন্য সমস্ত প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করতে হবে। প্রথমে আপনি একে একে শুরু করতে পারেন। উদাহরণস্বরূপ, আপনি যদি প্রথমে সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং দিয়ে শুরু করেন। এখন বলতে গেলে, এই সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং-এর মধ্যে অনেকগুলি বিভাগ রয়েছে – যেমন Facebook মার্কেটিং, টুইটার মার্কেটিং, Instagram মার্কেটিং, Pinterest LinkedIn এবং আরও অনেক কিছু। এখন আপনি চাইলে প্রথমে শুধু ফেসবুক মার্কেটিং দিয়ে শুরু করতে পারেন। বর্তমানে বাংলাদেশে হাজার হাজার উদ্যোক্তা আছেন যারা শুধু ফেসবুক ব্যবহার করে ঘরে বসেই লাখ লাখ টাকা আয় করছেন।

ডিজিটাল মার্কেটিংয়ের মধ্যে যা যা রয়েছে:

  • সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং
  • সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন
  • গুগোল মার্কেটিং
  • ইয়াহু মার্কেটিং
  • ইমেইল মার্কেটিং
  • অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং
  • এসএমএস মার্কেটিং
  • সিপিএ মার্কেটিং
  • লিড জেনারেশন

ডিজিটাল মার্কেটিং করে আয় করুন ঘরে বসে

মার্কেটিং এর মাধ্যমে অনলাইনে অর্থোপার্জনের জন্য আপনাকে প্রথমেই যা করতে হবে তা হল ডিজিটাল মার্কেটিং এর সাথে একটি দুর্দান্ত অভিজ্ঞতা থাকার কোন বিকল্প নেই। আপনি যখন ডিজিটাল মার্কেটিং-এ সম্পূর্ণ বিশেষজ্ঞ হয়ে উঠবেন, তখন আপনি আপনার পছন্দের যেকোনো মার্কেটপ্লেসে একটি অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে পারবেন। আপওয়ার্ক বা ফাইবার হতে পারে। আপনার পছন্দের মার্কেটপ্লেসে একটি অ্যাকাউন্ট তৈরি করার পরে ডিজিটাল মার্কেটিং এর যেকোনো মাধ্যম বা বিষয়ে একটি গিগ তৈরি করুন। হতে পারে এটা ফেসবুক মার্কেটিং বা সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন। আর এই গিগে উল্লেখ থাকবে যে কোন কাজের জন্য আপনি কত ডেলিভারি চার্জ নেবেন। আপনাকে গিগ সাজাতে হবে। এইভাবে আপনি আপনার দক্ষতার উপরে চার-পাঁচটি এসইও সমৃদ্ধ গিগ তৈরি করবেন।

একজন নতুন হিসেবে অনলাইন মার্কেটপ্লেসে চাকরি পেতে আপনার একটু দেরি হতে পারে। এক্ষেত্রে আপনি বিড করে কাজ নেবেন। তারপর যখন আপনি ধীরে ধীরে এবং সাবধানে কিছু কাজ ক্লায়েন্টের কাছে পৌঁছে দেবেন। এবং ফাইভ স্টার রিভিউ পান তাহলে আপনার গিগ মার্কেটপ্লেসে র‌্যাঙ্ক করতে থাকবে। আর পদমর্যাদা যত বেশি হবে, তত বেশি চাকরি আপনি স্বয়ংক্রিয়ভাবে পেয়ে যাবেন। এইভাবে, আপনার কাজের পরিমাণ বৃদ্ধি পাবে।

সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন (SEO) -এর মাধ্যমে ডিজিটাল মার্কেটিং

ধরা যাক আপনি একটি অনলাইন বইয়ের দোকান শুরু করতে চান। লোকেরা যদি একটি বই অর্ডার করে তবে এটি আপনার দোকান থেকে তাদের বাড়িতে পৌঁছে দেওয়া হবে। এখন আপনার দোকানের কথা কেউ জানে না। যদি কারো অনলাইনে বই কেনার প্রয়োজন হয়, সে গুগল মামাকে জিজ্ঞেস করবে “বাংলাদেশের অনলাইন বইয়ের দোকান।” গুগল মামা তাকে সুন্দরের মতো বর্তমান বইয়ের দোকানের কথাও বলবে। তবে মজার ব্যাপার হল, গুগলের প্রথম পাতায় যে দোকানগুলো আছে সেসব দোকান সম্পর্কে ভদ্রলোক জানবেন। Google আপনাকে নতুন দোকানের মালিক হিসেবে চিনতে পারে না। তাই গুগল আপনাকে প্রথম পৃষ্ঠায় নাও দেখাতে পারে।

এখন এসইও এমন একটি পদ্ধতি যা গুগলকে আপনাকে সার্চের প্রথম পাতায় আনতে বাধ্য করবে। এজন্য ওয়েবসাইট ডেভেলপ করার সময় বেশ কিছু কীওয়ার্ড ব্যবহার করতে হয়। আপনি যদি আবার Google কে অর্থ প্রদান করেন তবে এটি আপনাকে প্রথম পৃষ্ঠায় নিয়ে আসবে। একে SEM বা সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিংও বলা হয়। এছাড়াও, আপনি যদি SEO সম্পর্কে আরও জানতে চান তবে আপনি অনেক আকর্ষণীয় তথ্য পাবেন।

সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং

সোশ্যাল মিডিয়া যেহেতু আজকের সমাজে যোগাযোগের একটি প্রধান মাধ্যম হয়ে উঠেছে, এটি সকলের কাছে ডিজিটাল বিপণনের জন্য একটি বড় প্ল্যাটফর্ম। সোশ্যাল মিডিয়া এখন প্রত্যেকের দ্বারা একটি ঘটনা বা একটি পণ্য প্রচারের জন্য ব্যবহার করা হয়. এটাও দেখা যায় যে অনেক লোক এখন একটি ইভেন্ট প্রচারের জন্য প্রোফাইল পিকচারে ফিল্টার হিসাবে ফ্রেম ব্যবহার করে। এগুলোর মাধ্যমে ইভেন্ট মার্কেটিংও করা যায়। পোস্ট শেয়ারিং এবং বুস্টিংয়ের মাধ্যমে আপনি সহজেই আপনার প্রচারাভিযান ঘরে ঘরে চালাতে পারেন।

প্রতিদিনের প্রতি ঘণ্টায় কেউ না কেউ গল্প আপলোড করছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। কী করছেন, কী খাচ্ছেন, কোথায় যাচ্ছেন, কার সঙ্গে যাচ্ছেন, সবই গল্পে শেয়ার করতে হবে। এই গল্পের সুযোগ নিয়ে পণ্য বিক্রি করছে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান। এমনও দেখা যায় বিভিন্ন কোম্পানি তাদের সহযোগীদের সাথে গল্পের মাধ্যমে তাদের পণ্যের প্রচার করছে। এই ধরনের প্রচারণা সত্যিই এখন খুব জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে এবং সবাই এটি গ্রহণ করছে।

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং -এর মাধ্যমে ডিজিটাল মার্কেটিং

এটি প্রভাবক বিপণনের অনুরূপ। তবে এখানে জনসাধারণের পরিচিত মুখ থাকাটা তেমন গুরুত্বপূর্ণ নয়। ধরা যাক আপনার একটি ইউটিউব চ্যানেল আছে। আপনি সেখানে যাই করুন না কেন, সর্বদা একটি নির্দিষ্ট ব্র্যান্ডের পণ্য ব্যবহার করার কথা উল্লেখ করুন। আপনার যদি রান্নার চ্যানেল থাকে তবে আপনি একটি নির্দিষ্ট ব্র্যান্ডের পণ্য সম্পর্কে সবাইকে বলতে পারেন। বিনিময়ে, ব্র্যান্ড আপনাকে একটি প্রিমিয়াম প্রদান করে। এখানে আপনি সেই ব্র্যান্ডের অ্যাফিলিয়েট হিসেবে কাজ করছেন। অর্থাৎ আপনি আপনার কাজের মাধ্যমে সেই ব্র্যান্ড সম্পর্কে সবাইকে জানাচ্ছেন। কখনও কখনও অ্যাফিলিয়েটদের একটি আলাদা প্রোমো কোড দেওয়া হয়, যার মাধ্যমে গ্রাহকরা নির্দিষ্ট পণ্যের উপর বিশেষ ছাড় পেতে পারেন।

শেষ কথা

আমরা ডিজিটাল মার্কেটিং ইনকাম নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করলামি। আপনিও ডিজিটাল মার্কেটিং করে ঘরে বসে অনেক টাকা ইনকাম করতে পারেনি। তাই ঘরে বসে না থেকে আপনিও চেষ্টা করতে পারেন। আমাদের ওয়েবসাইট এ নিয়মিত ইনফর্মাশনাল আর্টিকেল দিয়ে থাকি। এগুলা নিয়মিত পেতে আমাদের সাইট ভিজিট করুন।