প্রিয় বন্ধুরা আপনারা যারা জানতে চাইতেছেন গুগলে সার্চ করে রুমা নামের অর্থ কি বা যারা বলতেছেন জানতে চাই রুমা নামের বাংলা অর্থ কি কিংবা যারা Ruma name meaning in Bengali বলে খুজতেছেন এবং রুমা নামের অর্থ এভাবেও লিখে সার্চ করতেছেন বা যারা জিজ্ঞাসা করতেছেন রুমা কি ইসলামিক/ আরবি নাম তাদের জন্য বলবাে, এই পােষ্টটি আজ আপনার জন্যই করা হয়েছে।

রুমা নাম কি ইসলামিক?

হ্যাঁ রুমা একটি ইসলামিক নাম। মুসলিম সন্তানদের নাম রাখার ক্ষেত্র রুমা নামটি রাখা যেতে পারে। অনেক মুসলিম দেশেই রুমা নামটি খুবই জনপ্রিয়। এছাড়া বিশ্ব বিখ্যাত কবির নাম ছিলো “রুমি” (জালাল উদ্দিন রুমী – কবি, সুফী  মাওলানা, মৌলভী।

রুমি নামটি থেকেই মূলত রুমা নামটি এসেছে। তাই বলা যায় যে, রুমি অথবা রুমা নাম একটি আধুনিক ইসলামিক নাম। আপনার প্রিয় সন্তানের নাম রুমা রাখতে চান তাহলে রুমা নামটি রাখতে পারেন।

রুমা নাম কাদের?

আপনার পরিবারে কিংবা আত্মীয় স্বজনের যদি কোন মেয়ে সন্তান ভূমিষ্ঠ হয় তাহলে তার নাম রুমা রাখতে পারেন। কেননা রুমা হলো একটি ইসলামিক আধুনিক মুসলিম মেয়েদের জনপ্রিয় সুন্দর অর্থ বহুল নাম। আর এই ক্ষেত্রে সব সময় মনে রাখবেন যে, রুমা হল একটি মেয়েদের নাম ছেলেদের নাম নয়। ছেলেদের যদি কখনো রুমা নাম রাখতে চান তাহলে না রাখার ই পরামর্শ দেওয়া হলো।

আপনারা চাইলে ছেলেদের নাম রুমা না নামটি না লিখে ছেলেদের জন্য রুমি নামটা রাখতে পারেন। রুমি নামটি কিন্তু খুব সুন্দর একটি ইউনিক অর্থ বহুল নাম। তাই ছেলেদের নাম রুমা না রেখে রুমি নামটি রাখতে পারেন। তবে সব সময় খেয়াল রাখতে হবে যে রুমা শুধুমাত্র মেয়েদের নাম। মেয়েদের নাম রাখার ক্ষেত্রে শুধুমাত্র রুমা নামটি ব্যবহার করা যেতে পারে।

ছেলেদের ক্ষেত্রে অন্য নাম গুলো ব্যবহার করা গেলেও রুমা নাম না রাখারই সবসময় চেষ্টা করবেন। যদি আপনার ঘরে কিংবা আত্মীয় স্বজনের কোন মেয়ে সন্তান ভূমিষ্ঠ হয় তাহলে তার নাম রুমা রাখতে পারেন। রুমা নামটি কিন্তু খুব মিষ্টি একটা ইসলামিক আধুনিক মুসলিম মেয়েদের নাম।

রুমা নামের অর্থ কী?

রুমা একটি ইসলামিক পরিভাষা শব্দ থেকে আগত। ইরানের অনেক জনপ্রিয় একটি নাম হলো রুমা। রুমা একটি ফারসি শব্দ থেকে ও আগত বলা যায়। রুমা নামটির অর্থ হলো “তারার গর্ভজাত” বা “বৃহস্পতির কন্যা”। এছাড়াও রুমা নামের আরবি অর্থ হল “আঠা” বা “সুগ্রীবের প্রত্নী”।

আরও দেখুনঃ আছিয়া নামের অর্থ কি?

বিভিন্ন ভাষায় রুমা নামের বানান

বিশ্বের প্রতিটা দেশে কম বেশি মুসলমান রয়েছে। প্রতিটি মুসলিম দেশের ভাষা ও কিন্তু আলাদা আলাদা ধরনের হয়ে থাকে। যে কারণে তারা বিভিন্ন ভাষায় রুমা নামটি বানান করে থাকে। আমরা যেমন বাংলা ভাষায় রুমা নামটি লিখে থাকি ঠিক তেমনি অন্যান্য দেশ গুলোতে ও রুমা নামটি তাদের নিজস্ব ভাষায় লেখা হয়।

সবচাইতে জনপ্রিয় কয়েকটি ভাষায় রুমা নামের বানান এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো; আরবী ভাষায় রুমা নামের বানান হলো (روما), উর্দু ভাষায় রুমা নামের বানান হলো (روما), ইংরেজি ভাষায় রুমা নামের বানান হলো (), হিন্দি ভাষায় রুমা নামের বানান হলো (रुमा)।
এছাড়াও আরও বিভিন্ন ধরনের ভাষায় রুমা নামটি লেখা হয়ে থাকে।

রুমা নামের জনপ্রিয় দেশসমূহ

বিশ্বের প্রত্যেকটি মুসলিম দেশেই রুমা নামটি খুবই জনপ্রিয়। আমাদের বাংলাদেশের অনেক মেয়েদের নাম রাখার ক্ষেত্রে রুমা নামটি রাখতে দেখা যায়। তবে রুমা নামটি সবচাইতে বেশি ভারত, পাকিস্তান, ইরান এর মেয়েদের রাখা হয়। এছাড়াও আমাদের বাংলাদেশে ও প্রচুর মেয়েদের নাম রুমা রাখা হয়। রুমা নামটি কিন্তু খুবই জনপ্রিয় সুন্দর একটা মুসলিম মেয়েদের ইসলামিক নাম।

বাংলাদেশ ও ভারতের অনেক বাঙালি মুসলমান মেয়েদের নাম রুমা রাখা ছাড়াও আরব দেশ গুলোত ও রুমা নামটি খুবই জনপ্রিয়। যেমন সৌদি আরব, কাতার, কুয়েত, ইরান ও ফিলিস্তিনের মতো জনপ্রিয় মুসলিম দেশগুলোতে মেয়েদের নাম রুমা রাখা হয়
মুসলিম মধ্যপ্রাচ্যের দেশ গুলো ছাড়াও ইন্দোনেশিয়া ও মালয়েশিয়ার মত মুসলিম দেশ গুলোতে অনেক মেয়েদের নাম রুমা রাখা হয়।

যদি আপনার মেয়ে সন্তানের নাম একটি ইসলামিক অর্থ বহুল রাখতে চান তাহলে রুমা নামটি রাখতে পারেন। রুমা কিন্তু খুব সুন্দর এবং অর্থ বহুল একটি বাম। এছাড়া ও চাইলে আপনার পরিবার কিংবা আত্মীয় স্বজনের যে কোন মেয়ে সন্তানের নাম রুমা রাখতে পারেন। রুমা নামটি একটি ইসলামিক আধুনিক মুসলিম মেয়েদের অর্থ বহুল খুব সুন্দর মিষ্টি একটা নাম।

 

জানতে ও জানাতে চাই।