মুসলিম বিশ্বের অনেক মেয়েদের নাম মুসকান রাখা হয়। এছাড়া ও ইসলামী পরিভাষায় মুসকান নামের সুন্দর অর্থ রয়েছে। সেই সাথে মুসকান একটি আরবি শব্দ। আর এই সব কারণে বলা যায় যে, মুসকান একটি আধুনিক ইসলামিক নাম। আপনি যদি চান আপনার প্রিয় সন্তানের নাম অথবা পরিবারের কিংবা আত্মীয়-স্বজনের যে কোন সন্তানের নাম মুসকান রাখতে পারেন। মুসকান নামের অর্থ কিন্তু খুব সুন্দর এবং মিষ্টি। সেইসাথে মুসকান নামটি হল একটি আধুনিক ইসলামিক মুসলিম মেয়েদের জনপ্রিয় নাম।

মুসকান নামের অর্থ কি?

মুসকান একটি আরবী শব্দ। ইসলামী পরিভাষায় মুসকান শব্দের অর্থ হলো হাসি বা খুশি। মুসকান নামের বাংলা অর্থ হল আনন্দিত। যে সব সময় আনন্দিত থাকে বা হাসি খুশি থাকে তাকে মূলত আরবি ভাষায় মুসকান বলা হয়
আপনার প্রিয় সন্তানের নাম যদি চান তাহলে মুসকান নামটা রাখতে পারেন। মুসকান নামটির অর্থ কিন্তু খুব সুন্দর এবং মিষ্টি। সেই সাথে মুসকান কিন্তু একটি আধুনিক ইসলামিক মুসলিম মেয়েদের জনপ্রিয় নাম।

মুসকান ছেলেদের নাকি মেয়েদের এই নাম?

মুসকান হলো মেয়েদের একটি ইসলামিক নাম। যদি আপনার মেয়ে সন্তান ভূমিষ্ঠ হয়। অথবা আপনার পরিবার কিংবা আত্মীয় স্বজনের মধ্যে কোন মেয়ে সন্তানের নাম রাখতে চান তাহলে মুসকান নামটা রাখতে পারেন। মুসকান নামটি হলো মেয়েদের নাম। ছেলেদের ক্ষেত্রে সব সময় মুসকান নামটি না রাখার চেষ্টা করবেন। ছেলেদের জন্য অন্যান্য নাম গুলো রাখা যেতে পারলে ও মুসকান নামটি শুধুমাত্র মেয়েদের সাথে সবচাইতে বেশী সুন্দর এবং মানানসই হয়।

তবে কিছু কিছু ক্ষেত্রে অনেকেই ছেলেদের নাম মুসকান রেখে থাকে। যদি ও ছেলেদের নাম মুসকান রাখলে তেমন কোন সমস্যা হওয়ার কথা নয়। তবু ও সব সময় চেষ্টা করবেন মুসকান নামটি শুধুমাত্র মেয়েদের জন্য রাখা। ছেলেদের জন্য মুসকান নামটা রেখে অন্য নাম গুলো রাখতে পারেন। ছেলেদের জন্য মুসকান নামের না রেখে আপনারা চাইলে “মুশফিক” অথবা “মিশকাত” নামটা রাখতে পারেন। এই নাম দুটো ও কিন্তু একটি ইসলামিক নাম। আর মেয়েদের জন্য সব সময় সুন্দর আধুনিক ইসলামিক অর্থ বহুল নাম মুসকান রাখবেন।

আরও দেখুনঃ আরিশা নামের অর্থ কি?

মুসকান নামের বানান সমূহ

বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মুসলমানরা ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে। মুসলমানদের প্রত্যেকটা দেশের আলাদা আলাদা ভাষা হওয়ার কারণে তারা মুসকান নামটি তাদের নিজস্ব ভাষায় লিখে থাকে বা বানান করে থাকে। আমরা যেমন বাংলা ভাষায় “মুসকান” নামটা লিখে থাকি। ঠিক তেমনি ভাবে অন্যান্য মুসলিম দেশ গুলোর মুসলমানেরা মুসকান নামটি তাদের নিজস্ব ভাষায় বানান করে। নিচে কয়েকটি ভাষার মুসকান নামের বানান দেওয়া হলো।

এতে করে আপনারা হয়তো মুসকান নামের বানানটি বিভিন্ন ভাষায় লিখতে পারবেন। বর্তমানে সবচেয়ে জনপ্রিয় কয়েকটি ভাষায় মুসকান নামের বানান এর মধ্যে সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য হলো; আরবী ভাষায় মুসকান নামের বানান হলো (مسكن), উর্দু ভাষায় মুসকান নামের বানান হলো (مسکراہٹ), ইংরেজি ভাষায় মুসকান নামের বানান হলো (), হিন্দী ভাষায় মুসকান নামের বানান হলো (मसकान)।

মুসকান নামের জনপ্রিয় দেশসমূহ

বর্তমান বিশ্বে মুসলিম মেয়েদের নাম রাখার ক্ষেত্রে মুসকান নামটি খুবই জনপ্রিয়। দেখা যায় মুসকান নামের সবচেয়ে বেশি রাখা হয় পাকিস্তান, ইন্দোনেশিয়া, মালয়েশিয়া ও মালদ্বীপ এর মত মুসলিম দেশ গুলোতে এছাড়া। মধ্যপ্রাচ্যের অনেক দেশে মুসকান নামের জনপ্রিয়তা আকাশচুম্বী। আমাদের বাংলাদেশে একটি ইউনিক নাম হলো মুসকান।

আমাদের বাংলাদেশের অনেক মুসলিম মেয়েদের নাম মুসকান রাখা হয়, তবে সেটা খুবই কম। যদি আপনি চান আপনার প্রিয় সন্তানের জন্য মুসকান নামটা কিন্তু রাখতে পারেন। মুসকান হলো একটি আধুনিক ইসলামিক অর্থ বহুল খুব সুন্দর মিষ্টি একটা জনপ্রিয় মেয়েদের নাম। তাই আপনার প্রিয় সন্তানের জন্য মুসকান নামটা রাখতে একেবারেই ভুলে যাবেন না।

জানতে ও জানাতে চাই।